সিলেট ০৮:০৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলম্যান প্রয়াত পল ভ্যালনের স্মরণে ক্লিনটন ডেমোক্রেটিক ক্লাবের সভা Logo সু-শিক্ষাই হল আগামী ডিজিটাল বাংলাদেশ গঁড়ার মূল চালিকাশক্তি- শাবিপ্রবি অধ্যাপক ড. শাহ্ মোঃ আতিকুল হক Logo মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক হুমায়ুন কবির হিরু মারা গেছেনপ্রয়ানে প্রবাসীদের শোক Logo সিলেটে তৃণমূল নারী  উদ্দ্যোক্তা সোসাইটির  সংবর্ধনা Logo নারী উদ্যোক্তাদের মাঝে তৃণমূল নারীউদ্যোক্তা সোসাইটির খাদ্য সামগ্রী বিতরণ Logo ইসলামপুরে স্বাবলম্বী উন্নয়ন সমিতির উদ্যোগে বিদ্যালয় ভিত্তিক সচেতনমূলক সভা Logo “মৌলভীবাজার জেলার সাবেক ছাত্রলীগের রিইউনিয়ন কমিটি ইউকের সভা অনুষ্টিত, Logo “অর্গ্যানাইজেশন ফর দ্য রিকগনিশন অব বাংলার প্রেসিডেন্ট ও সাবেক রাষ্ট্রদূত ড.তোজাম্মেল টনি হক আর নেই,, বিভিন্ন মহলের শোক প্রকাশ, Logo বিশ্ব মা দিবস-সব মায়েদের জন্য অফুরন্ত শ্রদ্ধা ও ভালবাসা Logo ড.এম এ ওয়াজেদ মিয়ার কর্ম জীবন থেকে অনেক শিক্ষনীয় আছে। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী মোজাম্মেল হক

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসক সংকট, ফেরত যাচ্ছেন অনেক রোগী

  • নিউজ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৫:৩০:২৩ অপরাহ্ণ, সোমবার, ১০ জুলাই ২০২৩
  • ১০১ বার পড়া হয়েছে

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতাল জেলার মধ্যে একমাত্র বিশেষায়িত হাসপাতাল। কিন্তু এখানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও কর্মচারীদের সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে। প্রয়োজনীয় সংখ্যক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক না থাকায় প্রতিদিন হাসপাতালের দু-একটি বিভাগ বন্ধ রাখতে হচ্ছে। এতে জেলার ৭টি উপজেলা ও ৫ টি পৌরসভাসহ আশপাশের সিলেট ও হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে চিকিৎসা নিতে অনেক রোগী প্রয়োজনীয় চিকিৎসা না পেয়ে ফেরত যাচ্ছেন।

সোমবার দুপুরে সরজমিন মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর আধুনিক হাসপাতাল ঘুরে দেখা যায় শত শত রোগীর ভিড়। কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়ন থেকে আসা হারুন মিয়া নামক একজন রোগী জানান, তিনি অর্থোপেডিক্স বিভাগে চিকিৎসা নিতে এসেছিলেন। কিন্তু ডাক্তার না থাকায় এই বিভাগ সাময়িক বন্ধ। তাই বাইরে চিকিৎসা নিতে হবে।

সরজমিন সেখানে গিয়ে দেখা যায় অর্থোপেডিক্স বিভাগের পাশাপাশি নাক কান গলা বিভাগও তালাবন্ধ। হাসপাতালে আরও দেখা যায় এম আর আই কক্ষ বন্ধ। ডায়লাসিস ইউনিটের ৬ টি বেড নষ্ট।

হাসপাতালের পরিসংখ্যান বিভাগের তথ্য মতে আগেরদিন রবিবার এই হাসপাতালের বহির্বিভাগ থেকে ৭৪৪ জন রোগী চিকিৎসা নেন। পাশাপাশি আবাসিক ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিল ১৩৫ জন।

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. বিনেন্দু ভৌমিকের কক্ষে গেলে তার সঙ্গে বসা পাওয়া যায় হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ফয়সাল জামানকে।

তিনি জানান, হাসপাতালে প্রতিদিন অসংখ্য রোগী আসছেন। কিন্তু ডাক্তার কম। বিশেষ করে বর্তমানে ৫৪ জন ডাক্তার জায়গায় কাজ করছেন ৩৭ জন। চিকিৎসকের শুন্য পদের সংখ্যা ১৭টি। এছাড়া দ্বিতীয় তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির পদসহ মোট ৪৭টি পদ শূন্য রয়েছে। আউটসোর্সিং ক্লিনারের পদে আরও ৪৭ জন নেই। সব মিলিয়ে জনবল সংকট প্রকট ।

হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. বিনেন্দু ভৌমিক জানান, এসব শূন্য পদের বিষয়টি মন্ত্রণালয়ে জানানো হয়েছে। কিন্তু সমস্যা হলো অনেক বিভাগ নেই। কিন্তু সরেস পদের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক পদায়ন করা হয়। আবার চালু আছে এমন বিভাগের ডাক্তারদের প্রত্যাহার করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/১০জুলাই/এআর)

ট্যাগস :
আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলম্যান প্রয়াত পল ভ্যালনের স্মরণে ক্লিনটন ডেমোক্রেটিক ক্লাবের সভা

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসক সংকট, ফেরত যাচ্ছেন অনেক রোগী

আপডেট সময় : ০৫:৩০:২৩ অপরাহ্ণ, সোমবার, ১০ জুলাই ২০২৩

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতাল জেলার মধ্যে একমাত্র বিশেষায়িত হাসপাতাল। কিন্তু এখানে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও কর্মচারীদের সংকট প্রকট আকার ধারণ করেছে। প্রয়োজনীয় সংখ্যক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক না থাকায় প্রতিদিন হাসপাতালের দু-একটি বিভাগ বন্ধ রাখতে হচ্ছে। এতে জেলার ৭টি উপজেলা ও ৫ টি পৌরসভাসহ আশপাশের সিলেট ও হবিগঞ্জ জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে চিকিৎসা নিতে অনেক রোগী প্রয়োজনীয় চিকিৎসা না পেয়ে ফেরত যাচ্ছেন।

সোমবার দুপুরে সরজমিন মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর আধুনিক হাসপাতাল ঘুরে দেখা যায় শত শত রোগীর ভিড়। কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়ন থেকে আসা হারুন মিয়া নামক একজন রোগী জানান, তিনি অর্থোপেডিক্স বিভাগে চিকিৎসা নিতে এসেছিলেন। কিন্তু ডাক্তার না থাকায় এই বিভাগ সাময়িক বন্ধ। তাই বাইরে চিকিৎসা নিতে হবে।

সরজমিন সেখানে গিয়ে দেখা যায় অর্থোপেডিক্স বিভাগের পাশাপাশি নাক কান গলা বিভাগও তালাবন্ধ। হাসপাতালে আরও দেখা যায় এম আর আই কক্ষ বন্ধ। ডায়লাসিস ইউনিটের ৬ টি বেড নষ্ট।

হাসপাতালের পরিসংখ্যান বিভাগের তথ্য মতে আগেরদিন রবিবার এই হাসপাতালের বহির্বিভাগ থেকে ৭৪৪ জন রোগী চিকিৎসা নেন। পাশাপাশি আবাসিক ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিল ১৩৫ জন।

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. বিনেন্দু ভৌমিকের কক্ষে গেলে তার সঙ্গে বসা পাওয়া যায় হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ফয়সাল জামানকে।

তিনি জানান, হাসপাতালে প্রতিদিন অসংখ্য রোগী আসছেন। কিন্তু ডাক্তার কম। বিশেষ করে বর্তমানে ৫৪ জন ডাক্তার জায়গায় কাজ করছেন ৩৭ জন। চিকিৎসকের শুন্য পদের সংখ্যা ১৭টি। এছাড়া দ্বিতীয় তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির পদসহ মোট ৪৭টি পদ শূন্য রয়েছে। আউটসোর্সিং ক্লিনারের পদে আরও ৪৭ জন নেই। সব মিলিয়ে জনবল সংকট প্রকট ।

হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. বিনেন্দু ভৌমিক জানান, এসব শূন্য পদের বিষয়টি মন্ত্রণালয়ে জানানো হয়েছে। কিন্তু সমস্যা হলো অনেক বিভাগ নেই। কিন্তু সরেস পদের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক পদায়ন করা হয়। আবার চালু আছে এমন বিভাগের ডাক্তারদের প্রত্যাহার করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/১০জুলাই/এআর)